শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায়

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় দর্শক - দেশি ব্লগর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম। আজকে আমি আপনাদের মাঝে শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায় নিয়ে আলোচনা করব।

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায় সম্পর্কে আরো জানতে গুগলে সার্চ করতে পারেন অথবা আমাদের ওয়েব সাইটে অন্যান্য পোস্টগুলো পড়তে পারেন। তো চলুন আমাদের আজকের মূল বিষয়বস্তুগুলো এক নজরে পেজ সূচিপত্রতে দেখে নেয়া যাকঃ

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায় এই সমস্যাটি খুব সহজে দূর করতে পারবেন। শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায় এই সম্পর্কে বিস্তার জানতে চাইলে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে।

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায়

হঠাৎ শরীর দুর্বল হলে করণীয়

আপনার শরীর যদি হঠাৎ দুর্বল হয়ে যায় এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে কী কী করনীয় তা নিচে আলোচনা করা হলো অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যে খাবার-দাবার অভাবে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে এক্ষেত্র আমি যোগ্য খাবার খেলে দুর্বলতা কমতে পারে।

আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় যে যাদের ডায়াবেটিকস আছে তাদের শরীর দুর্বল হয়ে যায় কারণ ডাইবেটিসের রোগীদের শরীর এমনিতেই দুর্বল থাকে সে ক্ষেত্রে যদি ডায়াবেটিকস কন্ট্রোল এ থাকে তাহলে দুর্বলতা কম দেখা দিবে। হঠাৎ যদি কারো শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে সে ক্ষেত্রে যে কাজগুলো করতে পারেন আপনি:-
  1. শরীর দুর্বল হওয়ার সাথে সাথে আপনি এক গ্লাস পানি পান করতে পারেনি এবং এক গ্লাস গরম দুধ পান করতে পারেন।
  2. সে ক্ষেত্রে আপনি কিছুক্ষণ রেস্ট নিতে পারেন। হালকা করে একটি ঘুমও দিতে পারেন।

শরীর ব্যক্তির দীর্ঘ সময় দুর্বল হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে  করণীয় 

  1. নিয়মিত পুষ্টিকর জনিত খাবার খেতে হবে।
  2. প্রতিদিন সকালে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে।
  3.  প্রতিদিন এক গ্লাস করে গরম দুধ পান করতে হবে।
  4. প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে।
  5. তাছাড়া ভিটামিন জনিত ঔষধ পান করতে হবে যাতে দুর্বলতা দূর করা যায়।

শরীর দুর্বল হলে কি কি সমস্যা হয়

এককের শরীরে একক রকম উপসর্গ দেখা দেয। মূলত অসুস্থতা দেখা দেয় তার কারণে শরীর এ দুর্বলতা দেখা দেয়। শরীর দুর্বলতার কারণে যে সব সমস্যা বেশি দেখা যায় শরীর দুর্বল হয়ে যায়‚ ক্লান্তভাব দেখা দেয়‚ কোন কাজে মন বসে না‚ মন মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়‚ অতিরিক্ত  ঠান্ডা লাগে যেটা আবহাওয়া সঙ্গে সামঞ্জস্য নয়‚ তাছাড়া পেট ব্যথা  করে‚ হজম শক্তি কম হয়‚ রাতে ঘুম হয় না।

অতিরিক্ত ওজন কমে যায়‚ তাছাড়া কিডনি ও লিভারের কার্যক্ষমতা কমে যায়‚ অতিরিক্ত প্রসাব ধরে‚ চুল পড়ার মত সমস্যা দেখা দেয়‚ চুলকানি জনিত রোগ হয়ে থাকে‚ তাছাড়া কোন কাজে মন বসে না অর্থাৎ মনোযোগ ক্ষমতা কমে যায়‚ অতিরিক্ত চিন্তা গ্রাস করে‚পানি পিপাসা পায়‚ মূলত এই সমস্যাগুলো হতে পারে।

কোন ভিটামিনের অভাবে শরীর দুর্বল হয়

সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজন ভিটামিন। তাহলে আমরা যদি ভিটামিন যুক্ত খাবার না খাই তাহলে ধীরে ধীরে শরীর দুর্বল হতে থাকবে। অর্থাৎ ভিটামিন বি১২ খাবার থেকে আমরা যে ভিটামিন পাই তারমধ্যে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ভিটামিন হলো বি১২। এই ভিটামিন মানুষের শরীরে তৈরি হয় না। ডিএনএ তৈরীর ক্ষেত্রে এ ভিটামিন সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে।

শরীরে ভিটামিন বি ১২ এর অভাব দেখা দিলে বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে যেমন ভুলে যাওয়া‚দুশ্চিন্তা‚মাথা ঘুরানো ইত্যাদি আরো অনেক সমস্যা দেখা দেয়। সবচাইতে বেশি যে সমস্যাটি দেখা দেয় সেটি হলো শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। এটির অভাব দেখা দিলে রোগী আস্তে আস্তে ক্লান্ত হয়ে পড়ে। ভিটামিন বি১২ এর অভাবে  পাকস্থলীর সমস্যার ঝুকি বেশি বেড়ে যায়। ফলে হাটতে চলতে এবং ভারসাম্য রাখতে অসুবিধা হয়।

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার ভিটামিন

নানান রকম ভিটামিন এর কৌটার প্রতি মানুষের বেশি আগ্রহ।দুর্বল লাগে‚ পা ব্যাথা করে‚ হাত পা ঝিরিঝিরি করে এমন নানা অজুহাতে আপনারা ভিটামিন খেতে চান। কখনো কখনো চিকিৎসকদের অনুরোধ করেন ভিটামিন লিখে দিতে।কিন্তু প্রয়োজন ছাড়া যে কোন ঔষধ শরীলের জন্য ক্ষতিকর।

যারা শরীর দুর্বল এর জন্য ঔষধ সেবন করেন তাদের মধ্যে অনেকের এমন ঔষধের প্রয়োজন নেই’বরং এইসব কারণে তাদের শরীরলের ক্ষতি হতে পার। জেনে রাখা ভালো পুষ্টির উপাদান অভাব যেমন শরীরের জন্য ক্ষতিকর তেমন এইসব ঔষধও শরীরের জন্য ক্ষতিকর। পুষ্টির অভাবের ঘাটতি যদি শরীর দুর্বলতা কারণ হয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবন করা বা ভিটামিন সেবন করা উচিত।

যেমন, আয়রন গভবতী নারীদের জন্য আয়রন ট্যাবলেট এর প্রয়োজন হয়। তবে রক্তশূন্যতা হলে আয়রন ট্যাবলেট  কোন কাজে দিবে সেই রকম না।শূন্যতা নানা ধরনের হয়ে থাকে।সব ধরনের রক্ত শূন্যতা আয়রনের কারণে হয় না।

আয়রনের সাথে টক জাতীয় খাবার খেলে সেটি শরীরে ভালোভাবে কাজ করে।তাছাড়া অন্য কোন ওষুধের সাথে আয়রন গ্রহণ করলে তারপর কার্য ক্ষমতা কম হতে পারে। তাই আয়রন সেবনের সিদ্ধান্ত কখনো নিজে নিজে নেওয়া উচিত নয়। 

ভিটামিন ডি প্রতিটি ভিটামিন সেবনের মাএা ও মেয়াদ আছে। যেমন অনেকেই মাসের পর মাস ভিটামিন ডি খান। কিন্তু কখনো রক্তেডির মাএা পরীক্ষা করে দেখিনি‚ তাই কত ইউনিট খাবেন এবং কত দিন খাবেন তা না জেনেই খাচ্ছেন। শরীরের দুর্বলতা কমাতে ভালো কাজ করে ভিটামিন ডি। এটি আপনার শরীরে থাকলে দুর্বলতা কাজ করবে না।

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার ওষুধ

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার জন্য বাজারে বিভিন্ন রকম ঔষধ পাওয়া যায়। তবে আপনি না জেনেই সব ধরনের ওষুধ খেয়ে থাকেন। আমার মতে ডাক্তারের পরামর্শ দেওয়া ঔষধ  আপনি সেবন করলে খুব দ্রুত আপনার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। শারীরিক দুর্বলতা দূর করার জন্য ভিটামিন ডি ব্যবহার করা হয়।
বাজারে আরো নানা কোম্পানির ঔষধ পাওয়া যায়।

শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সিরাপ

এক্ষেত্রে বর্তমান চিকিৎসক হামদার্দ কোম্পানির কিছু সিরাপ লিখে থাকেন যেই সিরা এক্ষেত্রে বর্তমান চিকিৎসক হামদার্দ কোম্পানির কিছু সিরাপ লিখে থাকেন সেই সিরাপ গুলো রোগীদের শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে অনেক ভালো ভূমিকা পালন করে এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কম। আপনি চাইলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এই কোম্পানির সিরাপ ব্যবহার করতে পারেন।
 

শেষ কথা

আজকের আলোচনা থেকে আপনারা জেনেছেন শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায়। যদি এই সকল বিষয় জানার মাধ্যমে আপনি উপকৃত হয়ে থাকেন‚ তাহলে পোস্ট এর নিচে আপনার মূল্যবান মন্তব্যটি দিয়ে আমাদের পাশে থাকুন।

আপনার আসলেই দেশি ব্লগর একজন মূল্যবান পাঠক। শারীরিক দুর্বলতা দূর করার সহজ উপায় এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই
এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য জানান

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন - অন্যথায় আপনার মন্তব্য গ্রহণ করা হবে না।

comment url