মাথা ব্যথা দ্রুত কমানোর সহজ ঘরোয়া সমাধান

মাথা ব্যথা কেন হয়? মাথা ব্যথা হলে সমাধান কি? কোন ধরনের মাথা ব্যথা হলে ডাক্তারের কাছে যাওয়া প্রয়োজন।

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় দর্শক - দেশি ব্লগর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম। আজকে আমি আপনাদের মাঝে মাথা ব্যথা দ্রুত কমানোর সহজ ঘরোয়া সমাধান নিয়ে আলোচনা করব।

মাথা ব্যথা দ্রুত কমানোর সহজ ঘরোয়া সমাধান সম্পর্কে আরো জানতে গুগলে সার্চ করতে পারেন অথবা আমাদের ওয়েব সাইটে অন্যান্য পোস্টগুলো পড়তে পারেন। তো চলুন আমাদের আজকের মূল বিষয়বস্তুগুলো এক নজরে পেজ সূচিপত্রতে দেখে নেয়া যাকঃ

মাথা ব্যথা খুব কমন একটি সমস্যা হয়ে উঠেছে। ছোট থেকে বড় প্রায় সবারই মাথা ব্যথা দেখা যায়। মাথা ব্যথার কারণে অনেকেই নানান সমস্যায় পড়েন। মাথা ব্যথা থাকলে কোনো কিছুতেই মন বসে না। গবেষণায় ১৫০ টিরও বেশি মাথা ব্যথার কারণ পাওয়া গেছে।

মাথা ব্যথা দ্রুত কমানোর সহজ ঘরোয়া সমাধান

মাথা ব্যথা প্রায় ৭০% টেনশন বা মানসিক চাপের কারণে দেখা যায় তবে এই টাইপের মাথা ব্যথার মধ্যেও আরও অনেক কারণ আছে মাথা ব্যথার। মাথা ব্যথার অনেক কারণ গুলোর মধ্যে কয়েকটি কারণ মাথা ব্যথার সময় বেশি দেখা যায়।

কম ঘুমানো

অনেক সময় কম ঘুমানোর কারণে মাথা ব্যথা দেখা যায়। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন অনেক রাত পর্যন্ত জেগে থাকেন তাই পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে পারেন না। এদের মধ্যে কেউ অফিসের কাজ করে কেউ টিভি দেখে আবার কেউ মুবাইল ফোন ব্যবহার করে। কম ঘুমানোর কারণে মাথা ব্যথা দেখা যায় আবার অনেক সময় বেশি ঘুমানোর কারণেও মাথা ব্যথা দেখা যায়। মাথা ব্যথা কমাতে অবশ্যই আপনাকে প্রতিদিন ৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে।

নির্দিষ্ট কিছু খাবার( চা,কফি,কোমল পানীয় ইত্যাদি)

আপনি যদি অতিরিক্ত মাত্রায় চা, কফি কোমল পানীয় ইত্যাদি খেয়ে থাকেন তাহলে মাথা ব্যথা দেখা দিতে পারে। এইসব খাবারে আছে কেফিন যা অতিরিক্ত খেলে মাথা ব্যথা সৃষ্টি করতে পারে। আপনার মাথা ব্যথা কমাতে অতিরিক্ত  মাত্রায় এইসব খাবার খাবেন না। এইসব খাবার অতিরিক্ত খেলে মাথা ব্যথা ছাড়াও আরও বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি করে তাই এইসব খাবার খাওয়ার অভ্যাস থাকলেও অতিরিক্ত মাত্রায় খাবেন না।

মানসিক চাপ

মাথা ব্যথার বড় একটি কারণ হচ্ছে মানসিক চাপ। মানসিক চাপে থাকলে মাথা ব্যথা দেখা দিবেই। মাথা ব্যথা কমাতে যে বিষয়ে মানসিক চাপে আছেন সেটি দ্রুত সমাধান করতে হবে। মানসিক চাপে থাকলে আরও নানান সমস্যা দেখা দেয়। তাই মানসিক চাপ কমাতে ঘুরতে যেতে পারেন সময় হয়ে না উঠলে সপ্তাহের ছুটির দিনে ঘুরতে যেতে পারেন, পরিবারের সাথে সময় দিতে পারেন।

মাইগ্রেনের কারণে

অনেক সময় মাইগ্রেনের কারণে মাথা ব্যথা দেখা দেয়। আমাদের মধ্যে যারা রোদে বা ধুলাবালিতে বেশি ঘুরাঘুরি করে তাদের ক্ষেত্রে এই মাইগ্রেন জনিত মাথা ব্যথা দেখা যায়। মাইগ্রেন একটি জটিল সমস্যা যা মাথায় ব্যাপক ব্যথা সৃষ্টি করে। মাইগ্রেন জনিত ব্যথা মাথার এক পাশে অনেক তীব্র ব্যথা সৃষ্টি করে। এই মাইগ্রেনের কারণে মাথায় ব্যপক ব্যথা অনুভব হয় যা স্বাভাবিক জীবন দ্বারায় বাধা সৃষ্টি করে।

মাথা ব্যথার অনেক কারণ রয়েছে তবে সাধারণত মাথা ব্যথায় এই কারণ গুলো বেশি দেখা যায়। মাথা ব্যথা দ্রুত কমাতে আপনি কয়েকটি কাজ করতে পারেন এতে মাথা ব্যথা থেকে খুব দ্রুত মুক্তি পেতে পারবেন।

তিন বেলা খাবার খাওয়া

অনেক সময় খাবারে অনিয়ম থাকলে মাথা ব্যথা দেখা দেয়। এর জন্য কোনো বেলার খাবার বাদ দেওয়া যাবে না প্রতিদিন ৩ বেলার খাবার সময় মতো খেতে হবে। আমরা যখন খাবার খাই তখন আমাদের শরীরে এক ধরনের চিনি উৎপন্ন হয় যা ব্রেনকে শক্তি ঝোগাতে সাহায্য করে। এতে ব্রেন ঠিক মতো কাজ করে। যখন কোনো বেলার খাবার বাদ পরে যায় তখন শরীরে উৎপাদিত চিনি কম উৎপন্ন হয় যার কারণে মাথা ব্যথা দেখা দেয়। তাই মাথা ব্যথা থাকলেও ৩ বেলা খাবার সময় মতো খাবেন।

পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খাওয়া

আমাদের শরীরে পানি কম থাকলে অনেক সময় মাথা ব্যথা দেখা দেয়। পানি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। শরীরে পানি শূন্যতা দেখা দিলে মাথা ব্যথা সহ আরও বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। আপনার শরীরে প্রতিদিন কতটুকু পানি প্রয়োজন ও কতটুকু পানি শরীর থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে তা বুঝা যায় না। তাই প্রতিদিন অন্তত ২ লিটার পানি পান করবেন।

ব্যায়াম করা

সারাদিন শুয়ে-বসে থাকার কারণে মাথার ব্যথা লক্ষ করা যায়। এই সমস্যায় মাথা ব্যথা হলে বেশি চিন্তা করার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনি বাসায় বসে কয়েকটি ব্যায়াম করতে পারেন। ব্যায়ামের মাধ্যমে মাথা ব্যথা ছাড়াও শরীরের বিভিন্ন সমস্যা দূর হয়ে যায়। প্রথম প্রথম ব্যায়াম করলে শরীরের অনেক জায়গায় ব্যথা হতে পারে তাই শরীরের জন্য উপযুক্ত ব্যায়াম গুলো বেছে নিবেন।

ব্যথা নাশক ঔষধ

আপনার মাথা ব্যথা যদি টেনশন টাইপের মাথা ব্যথা হয় তাহলে এই ঔষধ খেতে পারেন। মাথা ব্যথা কমাতে ১০০০ মিলিগ্রাম পেরাসিটামল ট্যাবলেট খেতে পারেন ১০০০ মিলিগ্রামের পেরাসিটামল না পেলে ৫০০ মিলিগ্রামের ২ টা ট্যাবলেট খেতে পারেন। মাথা ব্যথা যদি চলে যায় তখন এই ট্যাবলেট খাবেন না আর মাথা ব্যথা থাকলে ৪-৬ ঘন্টা পর পর ট্যাবলেট খাবেন তবে দিনে ৮ টা ট্যাবলেটের বেশি খাবেন না। এই ঔষধ শুধু প্রাপ্ত বয়স্ক ও যাদের ওজন ৫০ কেজির বেশি তাদের জন্য।

এই কাজ গুলোর মাধ্যমে আপনি শুধু আপনার টেনশন টাইপের মাথা ব্যথা কমাতে পারবেন। আপনার মাথা ব্যথা যদি মাইগ্রেন বা অন্য টাইপের হয় যেমন অনেক তীব্র ব্যথা, হঠাৎ অনেক বেশি ব্যথা শুরু হয় এইসব ক্ষেত্রে আপনাকে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

আপনার আসলেই দেশি ব্লগর একজন মূল্যবান পাঠক। মাথা ব্যথা দ্রুত কমানোর সহজ ঘরোয়া সমাধান এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

কোন মন্তব্য নেই
এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য জানান

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন - অন্যথায় আপনার মন্তব্য গ্রহণ করা হবে না।

comment url